শনিবার , ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং , বাংলা: ১৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , হিজরি: ২৫শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ভাণ্ডারিয়ায় সহপাঠীকে মোবাইল না দেয়ায় প্রাণ গেল স্কুল ছাত্রের ! আসামি আবিরকে কোর্টে প্রেরণ

ভাণ্ডারিয়ায় সহপাঠীকে মোবাইল না দেয়ায় প্রাণ গেল স্কুল ছাত্রের ! আসামি আবিরকে কোর্টে প্রেরণ

ভাণ্ডারিয়া প্রতিদেক || পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া থানা পুলিশ শুক্রবার (৩ডিসেম্বর)বিকালে উপজেলার ২নম্বর নদমূলা শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের নদমূলা গ্রামের একটি বের (খাল) থেকে শান্ত হাওলাদার (১৪) নামের এক স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে। সে নদমূলা গ্রামের মো.লোকমান হাওলাদার এর ছেলে এবং নদমূলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর ছাত্র।
এ ঘটনায় নিহতের বাবা অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামী করে শুক্রবার রাতে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। থানা পুলিশ এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে আবির হাওলাদার (১৪) নামের এক কিশোরকে আটক করেছে । সে নদমূলা গ্রামের কালাম হাওলাদার এর ছেলে এবং নিহত শান্ত হাওলার সহপাঠি।
মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, শান্ত হাওলাদার বৃহস্পতিবার বিকালে বাড়ী থেকে বের হয়ে আর ঘরে ফিরে আসেনি। শুক্রবার বিকালে স্থানীয়রা নদমূলা গ্রামের জাকারিয়া হাওলাদার এর বাড়ী সংলগ্ন একটি বেরে ছেলেটির মরদেহ দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। ছেলেটিকে নিজের গেঞ্জি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে শ্বাষরোধ করে হত্যা করে লাশ গুম করার উদ্যেশে ওই বেরের কাদা মাটির মধ্যে আংশিক পুতে রাখা হয় বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে ।
বিশ্বস্তসূত্রে জানাগেছে,নিহত শান্ত হাওলাদারের মোবাইল ফোনটি গেম খেলার জন্য চেয়েছিল সহপাঠী আবির। শান্ত সহপাঠী আবিরকে ফোন দেয়ায় উত্তেজিত হয়ে আবির নিজের গেঞ্জি দিয়ে শান্তর গলায় ফাঁস লাগিয়ে শ্বাষরোধ করে হত্যা করে লাশ বেরের কাদা মাটির মধ্যে আংশিক পুতে রাখা হয় বলে জানাগেছে। তবে আবিরের সহযোগীদের নাম পাওয়া যায়নি।
এদিকে এ ঘটনায় পিরোজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মঠবাড়িয়া-ভাণ্ডারিয়া)সার্কেল মো. ইব্রাহীম ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেন।
ভাণ্ডারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, পুলিশ শুক্রবার শান্ত হাওলাদার এর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ পিরোজপুর মগের্ প্রেরণ করেছে।
ভাণ্ডারিয়া থানার ইনপেক্টর (তদন্ত) মো.মেহেদি হাসান জানান, এ ঘটনায় নিহত ছেলেটির বাবা শুক্রবার রাতে অজ্ঞাত নামা ব্যক্তিদের আসামী করে ভাণ্ডারিয়া থানা একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ আবির হোসেন নামে এক কিশোরকে আইনের সহিত সংঘাতে জড়িত থাকার অপরাধে গ্রেফতার করে শনিবার (৪ডিসেম্বর) সকালে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।

এমন আরো খবর:

error: লেখা সংরক্ষিত!