রবিবার , ৫ই ডিসেম্বর, ২০২১ ইং , বাংলা: ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , হিজরি: ২৯শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ভান্ডারিয়া ও এম এস এর চাল বিক্রিতে….. খবরের প্রতিবাদ জানিয়েছেন ডিলার মো. বারেক শরীফ

ভান্ডারিয়া ও এম এস এর চাল বিক্রিতে….. খবরের প্রতিবাদ জানিয়েছেন ডিলার মো. বারেক শরীফ

অনলাইন ডেস্ক || প্রকাশিত খবর   “ভান্ডারিয়া পুলিশের সহায়তায়  ওএমএস এর চাল ম দেওয়ার অভিযোগ”

ডিলার মো. বারেক শরীফ পিরোজপুর টাইমসকে বলেনঃ তিনি জানান এ খবরের কোন সত্যতা নেই এটা একটি মহল আমাকে হেওপ্রতিপন্ন করার জন্য স্বরযন্ত্র করেছে।

দুইশত মানুষের চাল বরাদ্দ সেখানে লাইনে লোক ছিল ৭/৮ শত এত লোক দেখে আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে যাই প্রশাসন (পুলিশ)নেওয়ার জন্য পুলিশ ছারা নিয়ন্ত্রন করা সম্ভব নয়। এত মানুষের চাপ আমি কিভাবে সামাল দিব।

এ সময়ে আমার দোকানের কর্মচারী চাপের মুখে পরে চাল বিক্রি শুরু করে ডিজিটাল বাটখারা (পালা)হওয়ার কারনে সেখানে একটি বালতিতে চাল ভরে মাপতে হয় কিন্তু বালতির অতিরিক্ত ওজন ডিজিটাল মেশিন থেকে বাদ দিতে হয় এটা কর্মচারীরা জানতো না ।আমার আসার মধেই ৪/৫ জনের কাছে চাল বিক্রি করা হয়।আমি এসে আবার তাদের বালতির ওজনের চাল দিয়ে দি।

এ সময়ে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রন কর্মকর্তা উপস্হিত ছিলেন এবং তার অনুমোতিতে কর্মচারীরা চাল বিতরণ শুরু করে

শুধু ভান্ডারিয়াতে নয় ও এম এস এর চালের সারা দেশে চাহিদা রয়েছে।আমাদের দুইশত মানুষের জন্য চার বরাদ্দ কিন্তু এখানে মানুষ আসে আট নয়শত এটা সামাল দেওয়া কঠিন হয়েপরে।

পিরোজপুর টাইমসে যে খবর প্রকাশ হয়েছে এটা আমার ও আমার পরিবারের বিরুদ্ধে একটি মহল স্বরযন্ত্র করছে। এ খবরের তীব্র নিন্দা জানাই।

এমন আরো খবর:

error: লেখা সংরক্ষিত!