শুক্রবার , ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , বাংলা: ১৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , হিজরি: ১২ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

পিরোজপুর চায়না নাগরিক খুনের ঘটনা পরিকল্পিত নয় : শ ম রেজাউল করিম

পিরোজপুর চায়না নাগরিক  খুনের ঘটনা পরিকল্পিত নয় : শ ম রেজাউল করিম

অনলাইন ডেস্ক  || বাংলাদেশ ও চীনের মধ্যে রয়েছে অকৃত্তিম বন্ধুত্ব। এদেশে বড় বড় যে মেগা প্রকল্প আজ দৃশ্যমান তার পেছনে রয়েছে চীনের বন্ধুত্বপূর্ন সহযোগীতার হাত। অনাকাঙ্খীত এ ঘটনার জন্য সেতু নির্মানে কোন প্রভাব ফেলবেনা বলে মন্তব্য করেছেন মৎস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এমপি।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ও পিরোজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য বলেছেন, আমাদের উন্নয়নের সবচেয়ে বড় অংশীদার চীন, তাই চীনের নাগরিক হত্যার দ্রুত বিচার এর ব্যবস্থা করবে সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে অপরাধীদের অভয়ারণ্য হতে দেবেন না। তিনি প্রমাণ করে দিয়েছেন অপরাধী যতই শক্তিশালী হোক না কেন, অপরাধ করে পার পাবার কোন সুযোগ নেই।

মন্ত্রী বৃহস্পতিবার দুপুরে চীনের অনুদানে নির্মানাধীন চীন-বাংলাদেশ ৮ম মৈত্রী বেকুটিয়া সেতুর সন্নিকটে গতরাতে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে নিহত চীনা নাগরিক ও সেতুটির টেকনিশিয়ান প্যান ইউয়ানজুন (লাওফেন) (৫৮) এর হত্যার স্থান পরিদর্শন করেন এবং কর্মরত চীনা নাগরিকদের সাথে কথা বলেন। পিরোজপুর সার্কিস হাউজে এ উপলক্ষে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিং-এ মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় মন্ত্রী বলেন, চীন আমাদের দেশের ব্যাপক উন্নয়নে সক্রিয়ভাবে জড়িত রয়েছে। চীন আমাদের বন্ধু দেশ। এ ঘটনাটি সম্পূর্ণ অনাকাঙ্খিত একটি ঘটনা। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করে দ্রুত বিচারের সম্মূখীন করতে জেলা পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট সকল বিভাগ যথেষ্ট তৎপর রয়েছে। আমি সকলকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, এ ঘটনার সাথে জড়িত কোন অপরাধী এরিয়ে যেতে পারবে না। বিচারের মুখোমুখী তাদের হতেই হবে। আমাদের জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, র‌্যাব ও কোষ্টগার্ডসহ সংশ্লিষ্ট সকলের কর্মকাণ্ডে চীনা কর্মকর্তারা খুশী হয়েছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, পিরোজপুরের দুইটি প্রকল্পে কর্মরত চীনা নাগরিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে র‌্যাব ও পুলিশ যৌথভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ ঘটনায় উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে কোন প্রভাব পড়বে না এবং বেকুটিয়া সেতুর কাজ স্বাভাবিক গতিতেই চলবে। উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে নেতীবাচক প্রভাব পরে এমন কোন সংবাদ পরিবেশন না করতে তিনি সাংবাদিকদের অনুরোধ জানান।

উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধ্যায় বেকুটিয়া সেতুর টেকনিশিয়ান লাওফেন দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে পিরোজপুর হাসপাতালে ভর্তি হন এবং সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনায় অষ্টম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর প্রকৌশলী চাও চিয়েন হুয়া (২৩) বাদী হয়ে অজ্ঞাত পরিচয়ে আসামির বিরুদ্ধে পিরোজপুর সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ সময় পিরোজপুর জেলা প্রশাসক আবু আলী মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, পুলিশ সুপার মোঃ হায়াতুল ইসলাম খান, র‌্যাব বরিশাল-৮ এর উপ অধিনায়ক মেজর জাহাঙ্গীর আলম, সেতুটির সিকিউরিটি ইন-চার্জ মি. কাও, ডেপুটি ম্যানেজার মি. জয়েন এবং জেলা প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এমন আরো খবর:

error: লেখা সংরক্ষিত!