শনিবার , ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , বাংলা: ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , হিজরি: ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ২০০০ কৃষকের পাশে দাঁড়াচ্ছে আমাল ও আস্থা ট্রাস্ট

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ ২০০০ কৃষকের পাশে দাঁড়াচ্ছে আমাল ও আস্থা ট্রাস্ট

মেইল বক্স || বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ রংপুর, সিরাজগঞ্চ, টাঙাইল, বগুড়া, গাইবান্ধাসহ বেশ কয়েকটি জেলার ২০০০ জন কৃষকের পাশে দাঁড়ানোর জন্য যৌথভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে আমাল ফাউন্ডেশন ও আস্থা ট্রাস্ট। এর মাধ্যমে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের কৃষি উপকরণ ও সার বিতরণ করা হবে।

জানা গেছে, করোনাকালীন সময়ে দেশের কয়েকটি জেলার ১৪ লাখের বেশি কৃষক ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। বাড়িঘর তলিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি জমির ফসলও নষ্ট হয়ে গেছে। সংগঠন দুটির পক্ষ থেকে বেশ কয়েক দফায় তাদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হলেও তাদের অবস্থার তেমন কোন উন্নতি হয়নি। মাঠ পর্যায়ে সরিজমিনে ঘুরে এ চিত্র দেখে দুটি প্রতিষ্ঠান ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের পাশে দাঁড়াতে ও তাদের পূর্বের ন্যায় সাবলম্বী করতে তাদেরকে কৃষি উপকরণ প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কৃষি উপকরণ হিসাবে ধানবীজ, ইউরিয়া সার, ভার্মি কম্পোস্ট সার, সরিষা বীজ, ভুট্টা বীজ, মরিচের বীজ, লাল শাকের বীজ, তরমুজের বীজ প্রভৃতি বিতরণ করা হবে।

এমন উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আমাল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক ইশরাত করিম ইভ বলেন, ‘এবারের বন্যায় জমির ফসল নষ্ট হওয়ায় ভীষণ রকম কষ্টে আছে। বিশেষ করে এদেশের কৃষকরা জমিতে ফসল ফলিয়েই সারা বছর তাদের খাবারের চাহিদা মেটে। কিন্তু বর্তমানে তাদের কাছে বীজ ও সার কেনার  জন্য কোন প্রকার কানাকড়িও নেই। করোনাকালীন সময়ে এদের বেশিরভাগই আবার ঋণগ্রস্থ। আমাল ফাউন্ডেশন চায় দ্রæত এসব মানুষের অবস্থার উন্নতি হউক, পুনরায় তারা ঘুঁরে দাঁড়াক। এজন্যই বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ এসব কৃষকের জন্য আমরা শস্যবীজ ও সার বিতরণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।’

এ বিষয়ে আস্থা ট্রাস্টেও প্রতিষ্ঠাতা সোমা জাহিদ বলেন, ‘আমরা খোঁজ নিয়ে দেখেছি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের অসহায়ত্ব এখনো কমেনি। বন্যায় কৃষকের ফসলি জমি তলিয়ে যাওয়ায় নিদারুন কষ্টে আছেন তারা। নতুন করে ফসল ফলানোর জন্য এদের কাছে কোন টাকা পয়সা ও কিংবা বীজ নেই। বর্তমানে বন্যার পানি নেমে গেলেও বীজের অভাবে এরা জমি প্রস্তুত করতে পারছে না। কৃষিই মূলত এদের প্রধান পেশা , এ কারণে যতক্ষণ পর্যন্ত এরা জমির ফসল ফলাতে পারছে- ততক্ষণ পর্যন্ত তাদের অবস্থারও কোন উন্নতি হবে না। সরকারের পাশাপাশি আমরাও তাদের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। তাদেরকে সাবলম্বী করার এই প্রয়াসে সকলের সহযোগিতা একান্তভাবে কামনা করছি।’

এমন আরো খবর:

error: লেখা সংরক্ষিত!