শনিবার , ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং , বাংলা: ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , হিজরি: ১৩ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী

ঢাকা ১৮ আসনে উপ নির্বাচনে নৌকায় চড়তে চায় ড.আব্দুল ওয়াদুদ | মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ

ঢাকা ১৮ আসনে উপ নির্বাচনে নৌকায় চড়তে চায় ড.আব্দুল ওয়াদুদ | মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ

বিশেষ প্রতিনিধি || ঢাকা ১৮ আসনে উপ নির্বাচনে নৌকায় চড়তে চায় সাবেক ছাত্র নেতা শিক্ষাবিদ  ড.আব্দুল ওয়াদুদ ।ঢাকা ১৮ আসনে উপ নির্বাচনে মনোনয়নের জন্য দলীয় আবেদন পত্র সংগ্রহ করেছেন তিনি।

আওয়ামীলীগের সভানেত্রীর  ধানমন্ডির  কার্লয় থেকে ড. ওয়াদুদ এর পক্ষে মনোনয়ন পত্র সংগহ করেন উত্তরার বিশিষ্ট সমাজ সেবক,আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব মো: ফরিদ জোমাদ্দার ও আলহাজ্ব মালেক ভান্ডারী ।

ঢাকা ১৮ আসনের সংসদ সদস্য  সাহারা খাতুনের অকাল মৃত্যুতে এ আসনটি খালি হয় ।এ্যডভোকেট সাহারা খাতুনের স্নেহধন্য ড.আব্দুল ওয়াদুদ দলের দু:সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সাথে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন এক অকুতোভয় সৈনিক।ধারনা করা হচ্ছে এই ছাত্র নেতাই উপ-নির্বাচনে নৌকার টিকেট পাবেন।

117796671_591848558165816_1215185592519740152_n

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আলহাজ্ব মো: ফরিদ জোমাদ্দার বলেন,এ্যডভোকেট সাহারা খাতুন অতীব সৎ এবং দলের জন্য একজন বিশ্বস্ত কর্মী ছিলেন।এ আসনে আমরা  প্রধানমন্ত্রীর পাশে এমনই একজন প্রার্থী চাই।ড. ওয়াদুদ তেমনই একজন ব্যক্তি।তিনি দলের দুঃসময়ে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন ।তিনি দলের জন্য একজন নিবেদিত প্রাণ কর্মী।অপর এক প্রশ্নের জবাবে উত্তরার বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব মালেক ভান্ডারী বলেন,ড.ওয়াদুদ বসন্তের কোকিল নন।দুনীতি তাকে কখনও স্পর্শ করতে পারে নাই।প্রধানমন্ত্রীর জন্য ব্যপক জনমত গড়তে ও আওয়ামীলীগের বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ডে সব সময়েই আমরা তাকে পাশে পেয়েছি।বাংলঅদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান ড.ওয়াদুদ এর সাথে তার বাস ভবনে দেখা করেন।এ সময় অনেক নেতাকর্মী উপস্হিত ছিলেন।তিনি বলেন সৎ পরিশ্রমী এবং দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ ড. ওয়াদুদ ভাইকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা যদি মূল্যয়ন করেন তাহলে দেশ ও জাতি উপকৃত হবে।ড. ওয়াদুদ ভাই আমাদের জন্য একজন আদর্শবান ছাত্র নেতা ।  বাংলাদেশে আমরা তার লক্ষ কোটি ভক্ত অনুরাগী রয়েছি।তাঁর মত একজন পরিছন্ন ও ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি এই সময়ে জননেত্রীর পাশে খুবই প্রোয়োজন।

মনোনয়ন পত্র সংগ্রহের সময় ঢাকা-১৮ আসনের আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ ও সুধী সমাজের বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মী স্বাস্হ বিধি মেনে ধানমন্ডিস্হ আওয়ামীলীগ কার্লয়ে উপস্হিত ছিলেন।

ড. আবদুল ওয়াদুদ  ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন। এছাড়া সে তৎকালিন জহিরুল হক হলের ক্রীড়া সম্পাদক ছিলেন। ১৯৯০ এর রাজপথে গণ আন্দোলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একজন লড়াকু সৈনিক।

118040973_307268470609879_1540218416673932597_nড. ওয়াদুদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স মাস্টার্স করেছেনএবং দিল্লীর জহরলাল নেহেরু বিশ্ব বিদ্যালয় থেকে পিএইচ ডি করেন। এর পরে তিনি ঢাকা সিটি কলেজের সহকারী অধ্যাপক এবং নর্থ সাউথ ইউনিভারসিটি, ইন্ডিডেনডেন্ট ইউনিভারসিটি, কুইনস ইউনিভারসিটি, ঢাকা ইন্টারন্যালনাল ইউনিভারসিটির শিক্ষাকতা করেছেন।

এছাড়া তিনি ওয়াইড লাইফ কনজারভেশন এসোসিয়েশন এর মহা সচিব এছাড়া অটিজম ওয়েল ফেয়ার ফাউন্ডেশন, ফুল পাখি আর্ট, সাউথ বেঙ্গল বার্ড পার্কসহ বহু সামাজিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা বর্তমানে ওয়ার্ল্ড ফুটবলার্স ফোরামের সভাপতি এবং প্লাটিনাম গ্রপের মালিক । তিনি ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর আবদুল হালিম উকিল এর বড় ছেলে।

 

 

এমন আরো খবর:

error: লেখা সংরক্ষিত!