শনিবার , ২৮শে মার্চ, ২০২০ ইং , বাংলা: ১৪ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ , হিজরি: ৩রা শাবান, ১৪৪১ হিজরী
শিরোনাম

৭ বছর পর কাল ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন

৭ বছর পর কাল ইন্দুরকানী উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন

ইন্দুরকানী (পিরোজপুর ) প্রতিনিধি ||  অনেক জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সাত বছর পর কাল মক্সগলবার উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন। উপজেলা পরিষদ চত্তওে সম্মেলনের প্যান্ডেল সহ উপজেলা পরিষদ সড়ক ও বিভিন্ন স্থানে একাধিক তোরন নির্মান করা হয়েছে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দলীয় নেতা কর্মীদের মধ্যে যেমনি উৎসাহ বিরাজ করছে তেমনি সংশয় ও রয়েছে। চলছে লোবিং গ্রুপিং কে নেতা হবে আগামী কমিটিতে।২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারী সর্বশেষ উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলণ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সাত বছর পর ১৮ ফেব্রুয়ারী আবার সম্মেলন। সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাডঃ আফজাল হোসেন, উদ্ধোধন করবেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক সংসদ একে এম এ আউয়াল।
কিন্তু সম্মেলনে কমিটি গঠন কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে হবে কিনা সমঝোতায় হবে এ নিয়ে ভিন্ন মত রয়েছে। এ উপজেলায় ৫টি ইউনিয়নের ৫ টি তে সাংগঠনিক সম্মেলন হলেও এখন ও কমিটি ঘোষণা হয়নি। কে কাউন্সিলর কে ডেলেগেট তা এখনও নেতা কর্মীরা জানে না।
উপজেলা আওয়ামীলীগের নুতন কমিটিতে সভাপতি সাধারণ সম্পাদক পদে একাধিক প্রার্থীর নাম শোনা যায়। সভাপতি পদে প্রার্থী হিসাবে যাদের নাম শোনা যায়, উপজেলা চেয়ারম্যান ও বর্তমান সভাপতি এ্যাড. এম মতিউর রহমান, সহ- সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আঃ লতিফ হাওলাদার, সাবেক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মোবারক আলী হাওলাদার, শিল্পপতি মোঃ সেলিম হাওলাদার (ফ্যান সেলিম)।
সাধারণ সম্পাদক পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মৃধা মোঃ মনিরুজ্জামান সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক দুলাল, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোঃ সাঈদুর রহমান সাঈদ, জেলা পরিষদ সদস্য আবুল কালাম ইমরান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন হাওলাদার, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এইচ, এম বজলুর রহমান মিন্টু, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান শিকদার। সমে¥লনে দলীয় পদ পাওয়ার জন্য সম্ভাব্য প্রার্থীর নেতা কর্মীদের সাথে লোভিং চালিয়ে যাচ্ছে। তবে অনেকেই চায় নেতৃত্বে অনেকটা নতুনত্ব আসুক।
উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. এম, মতিউর রহমান জানান, সম্মেলনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। দলীয় নেতা কর্মীরা যদি আমাকে পুনারায় চায় তাহলে আমি দলের পদে থাকব না চাইলে দলের সাথেই থাকব।

এমন আরো খবর: